Oops! It appears that you have disabled your Javascript. In order for you to see this page as it is meant to appear, we ask that you please re-enable your Javascript!
SKU: 048048048048048048048048052054057053

ঝাড়খণ্ডে মহাপ্রভু

কেন মহাপ্রভু অবহেলিত আদিবাসী অধ্যুষিত ঝাড়খণ্ডে প্রেমধর্ম প্রচারের জন্য আসিয়াছিলেন, কী তাহার পটভূমি আর তাঁহার প্রভাবই বা কত স্থায়ী হইয়াছিল – তাহারই ঐতিহাসিক ও তুলনামূলক আলোচনা বর্তমান নিবন্ধের প্রধান বিষয়।

৳ 272

In stock

ঝাড়খণ্ড নামটি কিন্তু নূতন নয়। চৈতন্য মহাপ্রভুর সময় এই অঞ্চল এই নামেই পরিচিত ছিল। শুদ্ধ বৈষ্ণবীয় বাঙালায় ঝাড়খণ্ড অভিহিত হইয়াছিল ঝাড়িখণ্ড নামে। এই ঝাড়িখণ্ড চিরকালই অবহেলিত হইয়া আসিয়াছে; অরণ্যভূমি বলিয়া তথাকথিত সুসভ্য মানুষের পদচিহ্ন খুব কমই পড়িয়াছে এই অঞ্চলে। অথচ কেন কী জানি, ব্রাহ্মণ ও বেদ-বিরোধি দর্শনের প্রচারকরা এই অঞ্চলকেই তাহাদের দুর্গ বলিয়া মনে করিতেন। ২৩শ জৈন তীর্থঙ্কর পার্শ্বনাথ পাহাড়ে নির্বাণ লাভ করেন। ২৪শ জৈন তীর্থঙ্কর মহাবীর বা বর্ধমানস্বামী জৈন ধর্ম প্রচারকল্পে শিষ্যবৃন্দ-সহ দ্বাদশ বৎসর ‘লাড়া’ বা ‘রাঢ়’ ভূমিতে ভ্রমণ করিয়াছিলেন। বর্ধমান ভুক্তি বা বর্তমান বর্ধমান, এই স্থান-নাম তাঁহার পুণ্য স্মৃতি বহন করিতেছে। ৫৪৭ সংখ্যক বিশ্বম্ভর জাতকের কাহিনী অনুসারে ভগবান বুদ্ধ তাঁহার পূর্বজন্মে বেশান্তর (বিশ্বম্ভর) জাতকের দয়ালু রাজপুত্র হিসাবে জন্মগ্রহণ করেন। দানশীলতার জন্য, যাহাতে ভবিষ্যতে রাজ্য দেউলিয়া না-হইয়া যায়, সেই কথা বিবেচনা করিয়া প্রজাদের নির্দেশে পিতা তাঁহাকে রাজ্যের বাহিরে নির্বাসন দেন। কিন্তু বেশি দূর যাইতে না-যাইতেই এই দানশীল রাজপুত্র প্রথমত তাঁহার সালঙ্কারা হাতি, তাহার পর স্ত্রী ও পুত্রকন্যাকে অভাবী মানুষের সেবায় দান করেন এবং বঙ্কুগিরি পাহাড়ে তপস্যারত অবস্থায় মারা যান। এই বঙ্কুগিরিই বর্তমান বাঁকুড়ার শু শুনিয়া পাহাড়। বুদ্ধদেব বোধিলাভের পর এই পাহাড়ে আসিয়াছিলেন। ভগবান বুদ্ধের বহুকাল পরে শ্রীচৈতন্যও তাঁহার ধর্মপ্রচারের ক্ষেত্র হিসাবে রাঢ়ভূমি তথা ঝাড়খণ্ডকেই গ্রহণ করিয়াছিলেন। কেন মহাপ্রভু অবহেলিত আদিবাসী অধ্যুষিত ঝাড়খণ্ডে প্রেমধর্ম প্রচারের জন্য আসিয়াছিলেন, কী তাহার পটভূমি আর তাঁহার প্রভাবই বা কত স্থায়ী হইয়াছিল – তাহারই ঐতিহাসিক ও তুলনামূলক আলোচনা বর্তমান নিবন্ধের প্রধান বিষয়।

Weight 210 g
Dimensions 5.5 × 8.4 in

There are no reviews yet.

Be the first to review “ঝাড়খণ্ডে মহাপ্রভু”

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Updating…
  • No products in the cart.
Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial